‘প্রযুক্তিতে খাতে বিনিয়োগ পেতে বাধা দূর করতে হবে’

প্রকাশঃ ৯:০৯ অপরাহ্ন, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০১৮ – সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ১১:১০ অপরাহ্ন, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০১৮

 

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : উদ্ভাবনী প্রযুক্তির প্রয়োগে বাজার বাড়ায় ভেঞ্চার ক্যাপিটাল বিনিয়োগের পরিমাণও উল্লেখযোগ্য হারে বাড়ছে। বাংলাদেশ বিশাল এই বিশ্ব বাজারের একটি অংশ হতে পারে এবং এর জন্য প্রস্তুত  হওয়া উচিত বলে মতামত দিয়েছেন বক্তারা । শনিবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বেসিস সফটএক্সপো ২০১৮ আয়োজনে ‘অ্যাডাপ্টিং ইমার্জিং টেকনোলজিস ফর এক্সপোনেনশিয়াল ইকোনমিক গ্রোথ’ শিরনামের গোলটেবিল বৈঠকে বক্তারা এসব অভিমত দেন। ভেঞ্চার ক্যাপিটাল অ্যান্ড প্রাইভেট ইকুইটি অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ভিসিপিয়াব) এবং টাই ঢাকা এই গোলটেবিল বৈঠকের আয়োজন করে।

মাল্টি-স্টেকহোল্ডারের গোলটেবিল বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন ভিসিপিয়াব এর চেয়ারম্যান ও টাই ঢাকার সভাপতি শামীম আহসান। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদার। উদ্ভাবনীমূলক প্রযুক্তি, ডিজিটাল ভবিষ্যত এবং ভেঞ্চার ক্যাপিটাল বিনিয়োগ সম্পর্কে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ইজেনারেশন গ্রুপের এক্সিকিউটিভ ভাইস চেয়ারম্যান এসএম আশরাফুল ইসলাম ও ভিসিপিয়াব মহাসচিব শওকত হোসেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এফবিসিসিআই সভাপতি মো. শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, বাংলাদেশ ব্যাংকের উপদেষ্টা এস কে সুর চৌধুরী এবং আনোয়ার গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসেন খালেদ।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদার বলেন, বিদেশী বিনিয়োগের অন্যতম প্রধান বাধা হচ্ছে রেডিমেড ডাটার অনুপস্থিতি। আমাদেরকে এই ঘাটতি পূরণ করতে এবং উদ্ভাবনী প্রযুক্তি চর্চায় গবেষণা ও উন্নয়ন এবং প্রশিক্ষণ কেন্দ্র দরকার। ভিসিপিয়াব চেয়ারম্যান ও টাই ঢাকা সভাপতি শামীম আহসান বলেন, মাইক্রোসফট এবং আইডিসি পরিচালিত একটি গবেষণা অনুযায়ী, ২০২১ সালের মধ্যে এশিয়ার জিডিপির ৬০ শতাংশ অবদান রাখবে ডিজিটাল রূপান্তর। বাংলাদেশের এই উদ্ভাবনীমূলক প্রযুক্তির যথাযথ ব্যবহারে পারদর্শী হতে হবে। অনুষ্ঠানে অন্যান্যরাও বক্তব্য রাখেন ইমরান হোসেন মিলন